আপনার ব্যবসাটিকে এক ধাপ এগিয়ে নিতে প্রযুক্তির সঠিক ব্যবহারেই পেতে পারেন স্মার্ট সল্যুশন। sManager অ্যাপ ব্যবহারের মাধ্যমে আপনি আপনার ব্যবসা পরিচালনা করতে পারবেন খুব সহজেই। ব্যবসা পরিচালনার জন্য কারো উপর নির্ভর করার প্রয়োজন নেই। আপনার পুরো ব্যবসা থাকবে আপনারই হাতের মুঠোয়। জেনে নেয়া যাক sManager বিজনেস সল্যুশন অ্যাপ ব্যবহারের ৫ টি বিশেষ সুবিধা।

App Benefits

১। ব্যবসায় মনিটরিং

ব্যক্তিগত ব্যবসায়ের একটি অন্যতম চ্যালেঞ্জ হলো ব্যবসায়ের আয়-ব্যয়ের সার্বক্ষণিক মনিটরিং। ব্যবসায়ে সাফল্যের প্রথম শর্তই হলো দৈনন্দিন প্রতিটি আয়-ব্যয় সম্পর্কে জানা এবং হিসাবের খাতায় তাঁর এন্ট্রি প্রদান করা। sManager অ্যাপ-এর ফিচারগুলো এমন ভাবে তৈরি করা হয়েছে যার মাধ্যমে ব্যবসায়ের যেকোনো আয়-ব্যয় সংরক্ষণ করা যায় এবং সহজে তা রিপোর্ট আকারে দেখাও যায়।

sManager অ্যাপ-এ আপনি তাৎক্ষণিকভাবে, মাত্র ২ সেকেন্ডে বিক্রির এন্ট্রি দিতে পারবেন এবং দিন শেষে খুব সহজেই মোট বিক্রি দেখতে পারবেন। দিন শেষে কিংবা যখন ইচ্ছা তখন স্টক কাউন্ট করে বিক্রির খাতা থেকে বিক্রির পরিমাণ এবং পণ্যের পরিমাণ মিলিয়ে সঠিকভাবে আপনার ব্যবসার মনিটরিং করতে পারবেন এক নিমিষেই।

২। সময় সাশ্রয়

ব্যবসায়ী মাত্রই জানেন একটি ব্যবসা সঠিকভাবে পরিচালনা করতে কত বেশি সময় ব্যয় করতে হয়। সময় না দিলে ব্যবসায়ে সাফল্য আসে না এটা যেমন ভুল নয়, তেমনি নিজের পরিবার-পরিজনকে সময় না দিলে জীবন পরিপূর্ণ হয় না এটাও কম তাৎপর্যপূর্ণ নয়। যেকোনো ব্যবসায়ের একটি অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ কাজ হলো হিসাব রাখা এবং দিনের শেষে হিসাব মেলানো। প্রায়শই এই কাজটি শেষ করতে একজন ব্যবসায়ীর অনেক সময়ের প্রয়োজন হয়। কিন্তু sManager অ্যাপ-এ হিসাব মেলানোর এই ঝামেলা নেই।

কারণ, প্রতিটি বিক্রয় এন্ট্রির সাথে সাথেই আপনি আপনার মোট বিক্রির পরিমাণ, নগদের পরিমাণ, বাকীর পরিমাণ, স্টকের পরিমাণ এমনকি ঐ দিনের সর্বোচ্চ বিক্রিত পণ্যের লিস্ট কিংবা সর্বোচ্চ ক্রয় করা ক্রেতাদের নামের লিস্টও দেখতে পারবেন। গড়ে প্রতিদিন আপনি আপনার মূল্যবান জীবনের ২ ঘণ্টা সময় সাশ্রয় করতে পারবেন শুধুমাত্র sManager অ্যাপ ব্যবহার করে। ট্র্যাডিশনাল টালি খাতায় হিসাব রাখার চাইতে sManager অ্যাপ-এ হিসাব রাখলে সময় সাশ্রয় হয় যা আপনি দিতে পারেন আপনার পরিবার পরিজন, বন্ধু-বান্ধব কিংবা নিজেকে।

৩। ডিজিটাল লেনদেন

প্রযুক্তির কল্যাণে পৃথিবী এখন দ্রুত গতিতে পরিবর্তিত হচ্ছে। ট্র্যাডিশনাল ব্যবস্থাগুলোর জায়গায় আসছে ডিজিটাল প্রযুক্তি। নানাবিধ সুবিধার কারণে উন্নত বিশ্বে ব্যবসায়িক লেনদেনে ডিজিটাল প্রযুক্তি ব্যবহৃত হচ্ছে অনেক আগে থেকেই। বাংলাদেশে ডিজিটাল লেনদেনের ধারণাটি নতুন হলেও তা খুব দ্রুততার সাথেই জনপ্রিয়তা পাচ্ছে। অনলাইন ব্যাংকিং, ডেবিট/ক্রেডিট কার্ড, বিকাশসহ অন্যান্য মাধ্যমে অর্থ লেনদেন যেমন সহজ, তেমনি নিরাপদ। তবে দেশের আর্থ সামাজিক প্রেক্ষাপট বিবেচনায় দেখা যায়, অনলাইনে টাকা লেনদেন কিংবা ডেবিট/ক্রেডিট কার্ড-এর মাধ্যমে টাকা কালেকশন সব ব্যবসায়ীদের জন্য সম্ভবপর হয়ে ওঠে না।

কারণ, এই মাধ্যমগুলো থেকে টাকা গ্রহণের জন্য পস মেশিন বা কার্ড রিডার মেশিন প্রয়োজন হয়। কিন্তু sManager অ্যাপ এই বাঁধা দূর করেছে ‘ডিজিটাল কালেকশন’ ফিচার-এর মাধ্যমে। কাস্টমারকে শুধুমাত্র পেমেন্ট লিংক শেয়ার করেই এখন ডেবিট/ক্রেডিট কার্ড বা বিকাশসহ যেকোনো মাধ্যম থেকে খুব সহজেই আপনি কাস্টমারের পেমেন্ট গ্রহণ করতে পারবেন, এজন্য বাড়তি কোনো ডিভাইস লাগবে না। এই এক অ্যাপ-এর মাধ্যমে বিকাশ, নগদ, শিওর-ক্যাশ, মাস্টার কার্ড, ভিসা কার্ড, আমেরিকান এক্সপ্রেস কার্ড, অনলাইন ব্যাংকসহ বিভিন্ন মাধ্যমে কাস্টমার টাকা পরিশোধ বা প্রেরণ করতে পারবে। 

৪। স্মার্ট মার্কেটিং টুলস

ডিজিটাল যুগে ব্যবসায় পরিচালনায় প্রতিনিয়ত যুক্ত হচ্ছে নতুন নতুন মার্কেটিং মাধ্যম ও টুলস। অফলাইন মার্কেটিং এর তুলনায় অনলাইন মার্কেটিং হচ্ছে বেশি কার্যকর। এসএমএস ও ফেসবুক মার্কেটিং প্রতিটি কাস্টমারকে কানেক্ট করছে আলাদা করে। স্পেশাল কোনো মুহূর্ত বা উৎসবকে কেন্দ্র করে কিংবা কোনো নির্দিষ্ট ক্রেতা সাধারণকে টার্গেট করে দেয়া হচ্ছে প্রোমোকোড ডিসকাউন্ট সুবিধা।

ফলে কাস্টমারদের বাড়ছে লয়্যালিটি, তৈরি হচ্ছে কাস্টমার রিলেশনশিপ। আর আধুনিক যুগের এই সব মার্কেটিং টুলস-এর সব কিছুই এখন ব্যবহার করা সম্ভব sManager অ্যাপ-এর মাধ্যমে। sManager মার্কেটিং ও প্রোমো ফিচার-এর মাধ্যমে ছোট-বড় যেকোনো ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানের স্মার্ট মার্কেটিং করা যায় খুবই সহজ পদ্ধতিতে। 

৫। ব্যবসায়িক তথ্যের নিরাপদ ব্যাকআপ

ক্ষুদ্র ও মাঝারী ব্যবসায়ীদের সাথে বড় ব্যবসায়ীদের মূল পার্থক্য হলো ব্যবসা পরিচালনায় সঠিক তথ্য বা ডাটার অভাব। বড় ব্যবসায়ীরা পণ্যের চাহিদা বা ক্রেতার ধরন বুঝে ডাটা স্টোরিং থেকে এবং সে অনুযায়ী ব্যবসায়ে বিভিন্ন অফার কিংবা সাপ্লাই মেইন্টেইন করে। কিন্তু ক্ষুদ্র ও মাঝারী ব্যবসায়ীদের জন্য এই কাজটি করা অনেক কঠিন কিংবা একরকম অসম্ভব। কিন্তু sManager অ্যাপ-এ আপনি আপনার ব্যবসায়ের সব ধরনের রিপোর্ট সাপ্তাহিক, মাসিক কিংবা বাৎসরিক আকারেও পাবেন যার মাধ্যমে ব্যবসা পরিচালনায় আপনি নিতে পারবেন সঠিক সিদ্ধান্ত এবং ব্যবসা বৃদ্ধিতে দিতে পারবেন বিভিন্ন প্রমোশনাল অফার।

ব্যবসার যাবতীয় ডাটা ব্যাকআপ সুবিধা পাবেন এখন মাত্র একটি অ্যাপ-এ। টালি খাতা, হিসাবের খাতা, ফর্দ, রসিদ ইত্যাদি প্রায়শই হারিয়ে যেতে পারে বা নষ্ট হতে পারে, যার ফলে প্রয়োজনের সময় গুরুত্বপূর্ণ তথ্য না-ও পাওয়া যেতে পারে। কিন্তু sManager অ্যাপ-এর ডাটা ব্যাকআপ সুবিধার মাধ্যমে তথ্য চুরি, নষ্ট বা হারিয়ে যাওয়ার আর কোন ভয় থাকবে না কারণ আপনার সকল তথ্য সম্পূর্ণ নিরাপদ উপায়ে জমা থাকবে অনলাইনে।

উপসংহারে বলা যায়, sManager বিজনেস সল্যুশন মোবাইল অ্যাপটি তৈরি করা হয়েছে মূলত ক্ষুদ্র/মাঝারি ব্যবসায়ী বা উদ্যোক্তাদের কথা মাথায় রেখে, যেন খুব সহজেই এই অ্যাপ তাঁরা ব্যবহার করতে পারে। এই মোবাইল অ্যাপ-এর প্রতিটি ফিচার যেমন ব্যবসায় পরিচালনা করার জন্য উপকারী, তেমন এর ব্যবহার পদ্ধতিও বেশ সহজ ও সময়োপযোগী। 

অ্যাপ স্টোর আজই sManager অ্যাপটি ডাউনলোড করুন। যে কোনো প্রশ্নের জন্য sManager কাস্টমার কেয়ার- 16516 নাম্বারে কল করুন।

Leave a comment